মাটির তলা থেকে বেড়িয়ে আসা ৫টি রহস্যময় বস্তু যার ব্যাক্ষা বিজ্ঞানও জানে না

1
345

আমাদের পৃথিবী রহস্যময়। পৃথিবী তার বুকে কতইনা রহস্যময় বস্তু লুকিয়ে রেখেছে, আজ আমি এই ভিডিওতে আলোচনা করতে চলেছি পাঁচটি অদ্ভুত বস্তুর ব্যাপারে যা পৃথিবীর বুকে মানুষ খুঁজে পেয়েছে, যে বস্তুগুলি খুবই রহস্যময় এবং তার ব্যাখ্যা কেউই আজ পর্যন্ত দিতে পারিনি।

মাউন্ট ওয়েন ডোলও ।। MOUNT OWEN DLAW

rohoshyosondhane
rohoshyosondhane

এই রহস্যময় হাতটি নিউজিল্যান্ডে খুঁজে পাওয়া গিয়েছে। যা দেখতে কোন অদ্ভুত প্রাণী বা রাক্ষসের হাতের মত । বিশেষজ্ঞরা বলছেন এটি মোয়া নামের পাখির পাঞ্জা যারা প্রায় ২০০০ বছর আগে পৃথিবী থেকে বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছিল। এই পাখিটির আকার বিশাল বড়, এগুলি হাতির মতো বড় আকারের প্রাণীকেও শিকার করতে পারতো।

ভলগো গ্রাড ডিস্ক ।। VOLGO GRAD DISCS

rohoshyosondhane
rohoshyosondhane

রাশিয়ার একটি প্রত্যন্ত গ্রামে গ্রামবাসীরা খুঁজে পায় একটি অদ্ভুত আকৃতির পাথর। যার আকৃতি অনেকটা উ.এফ.ও -র মতো। এই অদ্ভুত পাথরটি দেখে সাধারণ মানুষ মনে করতে শুরু করে, এই পাথরটিকে এলিয়ানেরা পৃথিবীতে নিয়ে এসেছে। পাথরটির বিশেষত্ব হলো এই পাথরটি অন্যান্য পাথরের তুলনায় অনেক বেশি ভারি।

নাজকা লাইনস ।। NAZCA LINES

rohoshyosondhane
rohoshyosondhane

যদি আপনি বিমানে করে সাউদান পেরুর উপর দিয়ে যাত্রা করেন তাহলে আপনি মাটিতে কিছু আশ্চর্যজনক লাইন দেখতে পাবেন, এই রহস্যময় আকৃতি গুলি কে বানিয়ে ছিল এবং কী উদ্দেশ্যে বানিয়েছিল তা আজও রহস্য হয়ে রয়েছে। এলিয়েন তত্ত্বে বিশ্বাসী মানুষেরা মনে করেন এই লাইনগুলি বানানো হয়েছিল এলিয়েনদের সাথে যোগাযোগ করার উদ্দেশ্যে। এই লাইনগুলি আকারে এতটাই বড়, যে এগুলি আকাশ থেকেও পরিষ্কার দেখতে পাওয়া যায়। নাজকা লাইন সম্বন্ধে আরো বিস্তারিত জানতে উপরের আই বাটনটিতে ক্লিক করে বিস্তারিত ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন।

বাল্টিক সি অ্যাটনমি ।। BALTIC SEA

rohoshyosondhane
rohoshyosondhane

কিছু বছর আগে একটি জাহাজের কর্মরত ডুবুরিরা বাল্টিক সাগরের নিচে একটি আশ্চর্য বস্তু খুঁজে পায় যা দেখতে অনেকটা এলিয়েন স্পেসশিপ এর মত। কিছু মানুষ মনে করেন, যখন ভিনগ্রহের প্রাণীরা পৃথিবীতে এসেছিল তখন তাদের স্পেসশিপটি খারাপ হয়ে বাল্টিক সাগরের মধ্যে পড়ে যায়। বাল্টিক সাগরের এই রহস্যময় বস্তুটির সম্বন্ধে আরো বিস্তারিত জানতে উপরের আই বাটনটিতে ক্লিক করে বিস্তারিত ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন।

মিস্টিরিয়াস স্টোন ।। MYSTERIOUS STONE

rohoshyosondhane
rohoshyosondhane

মিশরের, একটি প্রত্নতাত্ত্বিক দল খনন করার সময় একটি বিশাল আকারের অদ্ভুত পাথর খুঁজে পায়। এই স্তম্ভটি প্রায় ৪২ মিটার লম্বা এবং এর ওজন প্রায় ১২০০ টন। প্রত্নতাত্ত্বিকরা মনে করেন এই পাথরটি প্রাচীন সময়ে পিরামিড বানানোর কাজে ব্যবহারের জন্য কাটা হয়েছিল। কিন্তু পাথরটিতে ফাটল থাকার ফলে এই পাথরটি ব্যবহার অযোগ্য হয়ে পড়ে আর তখন থেকে এটি সেখানেই পড়ে রয়েছে আশ্চর্যের ব্যাপার হলো এত ভারি পাথরগুলি কিভাবে তোলা হত বা এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় সরানো তা সত্যি একটি রহস্য। আপনার কি মনে হয় সেই সময় এই কাজ গুলি করার জন্য কোনও উন্নত প্রযুক্তি ব্যাবহার করা হত। প্রাচীন মানুষের কাছে সত্যি কোন উন্নত প্রযুক্তি ছিল কিনা তা জানার জন্য উপরের আই বাটনটিতে ক্লিক করে বিস্তারিত ভিডিওটি দেখে আসতে পারেন।

আজ এই পর্যন্তই, ভালো থাকবেন, ধন্যবাদ।

সুমন্ত

rohoshyosondhane
rohoshyosondhane

1 COMMENT

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here