ভবিষ্যতে যে মেশিন গুলি আমাদের সঙ্গি হতে চলেছে || উড়ন্ত মেশিন

0
334

যদি আপনার মনে পাখির মতো আকাশে উড়ার শখ থেকে তাহলে এই ভিডিওটি আপনার জন্য কারণ আজ আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেবে এমন কিছু আধুনিক উড়ন্ত মেশিনের সাথে যা ভবিষ্যতে আমাদের আকাশে উড়াতে সাহায্য করবে।

উড়ন্ত সুট ঃ-

rohoshyosondhane,myway
rohoshyosondhane,myway

আমেরিকার অধিবাসী রিচার্ড ব্রাউনিং আবিষ্কার করে ফেলেছে আয়রন ম্যানের মতো একটি উড়ন্ত সুট । যেটি পড়ে আপনি অনায়াসেই পাখির মতো আকাশে উড়তে পারবেন, এই সুটটিতে লাগানো আছে ৬টি ছোট আকারের জেট ইঞ্জিন। যার থেকে উৎপন্ন শক্তিকে হাতে লাগানো রিমোটের দ্বারা ডানদিক বাঁদিক উপর নিচে কন্ট্রোল করা সম্বভ। এই সুটটি পড়ে আপনি ৫২ কলোমিটার পার আওয়ার গতিবেগে আকাশে উড়তে পারবেন যা আজ পর্যন্ত মানুষের তৈরি এই ধরনের উড়ন্ত মেশিনের মধ্যে একটি ওয়ার্ল্ড রেকর্ড।

হুভার বোর্ড  ঃ-

rohoshyosondhane,myway
rohoshyosondhane,myway

বার্সেলোনার Lexus Company  এক অদ্ভুত হুভার বোর্ড  আবিষ্কার করেছে, যা মাটির উপর ভেসে থাকতে সক্ষম। যদিও এখনও এই মেশিনটির উপর কাজ চলছে কিন্তু এই মুহূর্তে মেশিনটি অ্যালুমিনিয়াম এবং কপারের প্লাটফর্মের ওপর উড়তে পারে। নির্মাতারা বলছেন ভবিষ্যতে এই মেশিনটি যে কোন জায়গার উপর দিয়ে উড়তে পারবে। এর মেশিনারির ব্যাপারে বলা হচ্ছে এতে ৩২ এট্রিয়াম বেরিয়াম কপার অক্সাইডের সুপার কন্ডাক্টার  লাগানো রয়েছে যেটি নাইট্রোজেন দিয়ে ঠান্ডা করার ফলে এটি  নির্বাচিত কিছু ধাতুর ওপর দিয়ে অতি সহজেই উড়তে পারে।

আরও পরতে ক্লিক করুন ঃ- বিশ্বের ৫টি সবচেয়ে বিপজ্জনক এয়ারপোর্ট

ফ্লাইবোর্ড এয়ার ঃ-

rohoshyosondhane,myway
rohoshyosondhane,myway

এই অদ্ভুত উড়ন্ত মেশিনটির আবিষ্কার কর্তা হল ফ্রান্সের অধিবাসী ফ্রাঙ্কি জাপাটা। এইটি একপ্রকারের জেটপ্যাক মেশিন। জাপাটা বলছেন এই মেশিনটি ঘন্টায় ১৫০ কিলোমিটার গতিবেগে আকাশে উড়তে পারে যদিও এটি এখনও প্রাক্টিকালি প্রমাণিত নয়। জাপাটা এখনও মেশিনটির উপর কাজ করছে, হতে পারে ভবিষ্যতে এই মেশিনটি খুব তাড়াতাড়ি মার্কেটে আসতে চলেছে।

জেটপ্যাক সুট ঃ-

rohoshyosondhane,myway
rohoshyosondhane,myway

এবার কথা বলব আসল জেটপ্যাক সুটের ব্যাপারে যা পুরোপুরি আকাশে উড়তে সক্ষম। এটি মানুষের শরীরে বেল্টের সাহায্যে বেঁধে দেওয়া হয় এরপর সেই বেক্তি আকাশে উড়ার জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত। পৃথিবীর সর্বপ্রথম জেটপ্যাক মেশিন একজন রাশিয়ান ব্যক্তি ১৯১৯ সালে তৈরি করেছিল, তারপর থেকে আজ পর্যন্ত এই মেশিনটিতে অনেক পরিবর্তন করা হয়েছে । আমাদের অত্যাধুনিক ভবিষ্যতের জন্য এই মেশিন গুলি এক যুগান্তকারী আবিষ্কার হতে চলেছে।

আপনাদের এই মেশিন গুলি কেমন লাগল? আপনার মতামতটি নিচের কমেন্ট বক্সে অবশ্যই জানান।

এই রকমই অজানা ও রোমাঞ্চকর ঘটনা জানতে আমাদের সাথে যুক্ত থাকুন।

ধন্যবাদ…………।।

সুমন্ত

rohoshyosondhane,myway
rohoshyosondhane,myway

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here